সেরা হোস্টিং প্রোভাইডারঃ ৩ টি মানসম্মত আমেরিকান হোস্টিং কম্পানি

হ্যালো বন্ধুরা। কেমন আছেন সবাই? আশা করি ভালই আছেন। আমি জামান আপনাদের সামনে আজ হাজির হয়েছি নতুন একটি বিষয় নিয়ে। আর সেটা হল হোস্টিং প্রোভাইডার। হোস্টিং প্রোভাইডার হল যারা হোস্টিং এর ব্যবসা করে। অর্থাৎ আপনি যে সকল প্রতিষ্ঠান থেকে হোস্টিং কিনবেন তাদেরই হোস্টিং প্রোভাইডার বলে।

 

হোস্টিং প্রোভাইডার সম্পর্কে এবং তাদের হোস্টিং এর দাম ও পুরা ডিটেইলসই আপনি আমার এই পোস্টে পাবেন। ফলে এই সম্পর্কে জানতে আর আপনাকে গুগলের সহায়তা নিতে হবে না বলে আমি মনে করি।

 

তো আজ আমি সবচেয়ে সেরা কিছু হোস্টিং প্রোভাইডার নিয়ে কথা বলবো। আমার ডোমেইন ও হোস্টিং এর অন্যান্য যে সকল পোস্ট আছে, সেগুলোতে আমি অনেক বারই বলেছি যে, যদি আপনি আপনার সাইটটি পূর্ণ সিকিউরিটির মধ্যে রাখতে চান তাহলে মূল প্রোভাইডার বা কম্পানি থেকে আপনাকে হোস্টিং কিনতে হবে।

 

কারণ মূল কম্পানি ছাড়া অন্য যে সকল কম্পানি আছে তারা ঠিক মত সার্ভিস দিতে পারে না। এরা হল লোকাল কম্পানি। এই সকল লোকাল কম্পানি মূল কম্পানির সাথে ডিল করে হোস্টিং এর ব্যবসা করে। তাই এদের কাছ থেকে হোস্টিং না কিনে মূল কম্পানি থেকেই কেনা ভাল।

 

অনেক লোকাল কম্পানি বাংলাদেশসহ সারাদেশেই ছড়িয়ে আছে। যারা অনেক অনেক ছাড় দিয়ে হোস্টিং অফার করছে। আর কিছু নতুন লোক আছে যারা তাদের ওয়েবসাইট কেবলই শুরু করেছে এরা বেশি লাভের জন্য ব্যপক ক্ষতি ডেকে আনে এই সকল লোকাল কম্পানির থেকে হোস্টিং কিনে।

 

কারণ একটা লোকাল কম্পানি থেকে হোস্টিং কিনলে নিজের সাইটের অনেক তথ্য তাদের কাছে থেকে যায়। ফলে সাইটটি সিকিউরিটি পায় না। চুরি হয়ে যেতে পারে আপনার অনেক তথ্য। এছাড়া আপনার সাইটটি হ্যাকও হয়ে যেতে পারে।

 

আবার লোকাল প্রোভাইডারদের কাছ থেকে হোস্টিং কেনার সময় অনেক ক্ষেত্রে কন্ট্রোল প্যানেল তাদের নিজেদের আন্ডারে রেখে দেয়। ফলে আপনি অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে পারেন। এমন অনেকেই আছেন যারা লোকাল কম্পানি থেকে হোস্টিং কিনে এখন আর অন্য কোন হোস্টিং ইউজ করতে পারছেন না।

 

যেহেতু নিজের সাইটে নিজের অনেক ডাটাই সংরক্ষণ করতে হয় সেহেতু কোন ধরনের ঝুঁকি না নেওয়াই ভাল। তাই আমি আপনাদের আবারও সাবধান করার জন্য বলতে চাই যে, লোকাল কম্পানি বা প্রোভাইডার নয়, মেইন প্রোভাইডারদের থেকে হোস্টিং নিন।

 

সেরা হোস্টিং প্রোভাইডার

অনেক গুলো হোস্টিং প্রোভাইডার আছে যারা নিষ্ঠার সাথে তাদের সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এই সকল মেইন প্রোভাইডারদের মধ্যেও সেরা কিছু প্রোভাইডার আছে যারা সব সময়ই জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকে। কারণ তারা পূর্ণ সিকিউরিটির পাশাপাশি প্রায় সব সময়ই নতুন কাস্টমারদের জন্য বিভিন্ন অফার রাখে।

 

এই সকল মেইন প্রোভাইডাররা হোস্টিং এর ভিন্ন ভিন্ন দাম অফার করে। তবে তাদের দামের মধ্যে খুবই সামান্য পার্থক্য থাকে। যা ধরার ভিতরে নয়। কারণ প্রায় সকল প্রোভাইডাররাই প্রতিযোগিতামূলক ভাবে ব্যবসা করে।

 

এক একটি প্রোভাইডারদের বিভিন্ন ধরনের হোস্টিং প্যাকেজ থাকে। যার মেয়াদও ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। আপনাকে এই সকল প্যাকেজের মধ্যে একটি প্যাকেজ সিলেক্ট করে নিতে হবে নিজের সাইটের জন্য। আর সেই প্যাকেজের মেয়াদও আপনাকে ঠিক করতে হবে। কারণ প্যাকেজ ও মেয়াদের ভিন্নতার ভিত্তিতে দাম ওঠা নামা করে।

 

আপনি চাইলে ১ মাস থেকে শুরু করে ২ বছর মেয়াদের হোস্টিং প্যাকেজ কিনতে পারবেন একবারই। আবার যদি মনে করেন যে, প্রথমে ১ মাসের প্যাকেজ ব্যবহার করতে চান তাহলেও পারবেন। তবে যে মেয়াদের প্যাকেজই কিনুন না কেন মেয়াদ শেষে আপনাকে আবার প্যাকেজটির মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে হবে।

 

অন্যদিকে প্রথমে যে হোস্টিং প্যাকেজ কিনবেন, পরে আপনি চাইলে সেই প্যাকেজ চেঞ্জ করে অন্য প্যাকেজও নিতে পারেন। তবে একবারে বেশি মেয়াদের এবং ভাল হোস্টিং প্যাকেজ কেনা ভাল। কারণ এতে কিছুটা ছাড় পাওয়া যায়। ফলে তখন তুলনামূলক ভাবে দাম একটু কম হয়।

 

যাই হোক, অনেক কিছু বুঝিয়ে ফেলেছি। এখন মূল বিষয়ে ফেরা যাক। নিচে আমি কিছু সেরা হোস্টিং প্রোভাইডার ও তাদের হোস্টিং প্যাকেজের দামের সাথে সাথে পুরো ডিটেইলস নিয়ে আলোচনা করলাম।

 

আরো প্রড়ুনঃ

কোডিং ছাড়াই নিজের ওয়েবসাইট তৈরির পদ্ধতি!

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কেমন?

ডোমেইন কিভাবে কিনবেন তার এ টু জেড গাইড

 

Namecheap

বর্তমানে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হোস্টিং প্রোভাইডার হল Namecheap. কারণ এরা ডোমেইনের সাথে সাথে হোস্টিংও বিক্রি করে থাকে। আর এই কম্পানি প্রায় সব সময়ই শীর্ষ স্থানে থাকে। এদের ডাটা সেন্টার US ও UK তে। ফলে এদের থেকে অনেক বেশি সিকিউরিটি পাওয়া যায়। নিচে এই প্রোভাইডারের হোস্টিং এর বিভিন্ন প্যাকেজ ও দামের সাথে সাথে বিস্তারিত উল্লেখ করলাম।

 

১। Shared Hosting

আপনি যদি নিউ সাইট খুলে থাকেন, তাহলে শেয়ার হোস্টিংই যথেষ্ট আপনার সাইটের জন্য। আর এই হোস্টিং প্যাকেজ অনেক বেশি ব্যবহৃত হয়। কারণ প্রায় সবাই এই শেয়ার হোস্টিং ইউজ করে থাকে। এই শেয়ার হোস্টিং এর ৩ টা প্যাকেজ আছে। Stellar, Stellar Plus এবং Stellar Business । শেয়ার হোস্টিং এর দাম শুরু হয়েছে ২.৮৮ ডলার থেকে।

 

Stellar প্যাকেজে আছে-

20GB SSD-Accelerated Disk Space

Unmetered bandwidth

Up to 3 websites

Website Builder

Us or UK Datacenter

দামঃ ২.৮৮ ডলার বা প্রায় ২৪২ টাকা। (১ মাস)

আর এর সাথে মেয়াদ যত বাড়াবেন দাম ততই বেশি হবে।

 

Stellar Plus প্যাকেজে আছে-

Unmetered SSD-Accelerated Disk Space

Unmetered bandwidth

Unlimited websites

Website Builder

US or UK Datacenter

দামঃ ৪.৮৮ ডলার বা প্রায় ৪১০ টাকা। (১ মাস)

সাথে আপনি মেয়াদ যত বাড়াবেন তেমনই দাম বৃদ্ধি পাবে।

 

Stellar Business প্যাকেজে আছে-

50 GB Oure SSD Disk Space

Unmetered bandwidth

Unlimited websites

Website Builder

US or UK Datacenter

দামঃ ৮.৮৮ ডলার বা প্রায় ৭৪৬ টাকা। (১ মাস)

এটাতেও আপনি মেয়াদ বাড়াতে পারবেন।

 

২। Reseller Hosting

এই হোস্টিং এর দাম শুরু হয়েছে মাসে ১৬.৮৮ ডলার বা প্রায় ১৪১৮ টাকা থেকে। তবে মেয়াদ বাড়ানোর সাথে সাথে এর দামও বৃদ্ধি পাবে। এরও অনেক গুলো প্যাকেজ আছে।

 

৩। VPS Hosting

ভিপিএস হোস্টিং শুরু হয়েছে ১৪.৮৮ ডলার থেকে বা প্রায় ১২৫০ টাকা থেকে। যার মেয়াদ ১ মাস। মেয়াদের সাথে সাথে এর আরো অনেক প্যাকেজ আছে যেগুলো আপনি পছন্দ করে নিতে পারবেন।

 

৪। Dedicated Servers

এই হোস্টিং মূলত অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যবহার করে থাকে। ফলে এর দাম একটু বেশি হয়ে থাকে। ৫৮.৮৮ ডলারে মাসিক ভিত্তিতে খরচ পড়বে এর জন্য। যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৪৯৫০ টাকা। সাথে আছে অনেক গুলো প্যাকেজ এবং মেয়াদ বেড়ানোর পদ্ধতিও।

 

৫। Email Hosting

এটার দাম ৯.৮৮ ডলার থেকে শুরু। যা প্রায় ৮৩০ টাকার সমান। এর মেয়াদও ১ মাস। তবে মেয়াদ বাড়ানো যাবে।

 

৬। Managed WordPress Hosting

খুবই কম দামে শুরু হয়েছে এই হোস্টিং টি। মাত্র ১ ডলার থেকে শুরু হয়েছে এই হোস্টিং। যা বাংলাদেশী টাকায় হয় প্রায় ৮৪ টাকা। এর মেয়াদও বৃদ্ধি করতে পারবেন।

 

GoDaddy

জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে এই হোস্টিং প্রোভাইডারও অনেক এগিয়ে আছে। এরা বছরে ৩৬৫ দিন, সপ্তাহে ৭ দিন এবং ২৪ ঘন্টাই অ্যাকটিভ থাকে। আর ৯৯.৯% গ্যারান্টি দিয়ে থাকে এরা। এরাও অনেক গুলো হোস্টিং অফার করে থাকে। আর সেই সকল হোস্টিং এরও অনেক গুলো করে আলাদা আলাদা প্যাকেজ আছে। নিচে আমি সেগুলো উল্লেখ করলাম।

 

১। Web Hosting

এই শুরু হয়েছে ৭.৯৯ ডলার থেকে। যা প্রায় ৬৭২ টাকার মত। এর ৪ টা প্যাকেজ আছে। Economy, Deluxe, Ultimate এবং Maximum

 

Economy: এই প্যাকেজে আছে-

1 website

100 GB storage

Unmetered bandwidth

Free Business Email- 1st year

দামঃ ৭.৯৯ ডলার বা প্রায় ৬৭২ টাকা। (১ মাস)

মেয়াদ বাড়ালে দামও বৃদ্ধি পাবে।

 

Deluxe: এই প্যাকেজে আছে-

Unlimited websites

Unlimited storage

Unlimited subdomains

দামঃ ১০.৯৯ ডলার বা প্রায় ৯২৪ টাকা। (১ মাস)

দাম বাড়বে যদি আপনি মেয়াদ বাড়াতে চান।

 

Ultimate: এই প্যাকেজে আছে-

2x processing power & memory

Free SSL Certificate – 1 year

Free Premium DNS

Unlimited databases

দামঃ ১৬.৯৯ ডলার বা প্রায় ১৪২৮ টাকা। (১ মাস)

১ মাস থেকে বেশি সময়ের জন্য নিতে চাইলে দাম বাড়বে।

 

Maximum: এই প্যাকেজে আছে-

2x more power and memory

2x Maximum site traffic

Free SSL Certificate for the full term

দামঃ ২৪.৯৯ ডলার বা প্রায় ২১০০ টাকা। (১ মাস)

মেয়াদও অনেক আছে। আপনার ইচ্ছামত আপনি মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

 

২। Business Hosting

এই হোস্টিং এর দাম শুরু হয়েছে ২৯.৯৯ ডলার থেকে। যা বাংলাদেশী টাকায় ২৬২০ টাকা। যার মেয়াদ ১ মাস। দামের বৃদ্ধি হবে যখনই ১ মাসের বেশি মেয়াদ বাড়াবেন। এরও ৪ টি প্লান আছে। Launch, Enhance, Grow এবং Expand । এদের প্রতিটা প্লানের সুযোগ সুবিধা ভিন্ন ভিন্ন। আর মেয়াদের উপরও ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে।

 

৩। WordPress Hosting

এর দাম শুরু হয়েছে সর্বনিম্ন ৮.৯৯ ডলার থেকে (১ মাস)। এই হোস্টিং এরও ৪ টা প্লান। Basic, Deluxe, Ultimate এবং Developer. এদের প্রতিটার দাম এক এক ধরনের হয়ে থাকে।

 

৪। VPS Hosting

এরও কয়েকটি প্লান আছে। আপনার সাইটের জন্য উপযুক্ত কোন প্লান সিলেক্ট করে নিতে পারেন এর জন্য। আপনার চাহিদা যেমন ঠিক তেমনই একটা প্লান নিতে পারবেন। এর দাম শুরু হয়েছে ২৪.৯৯ ডলার বা প্রায় ২১০০ টাকা। Launch, Enhance, Grow এবং Expand এই ৪ টা প্লান আছে।

 

৫। Dedicated Server Hosting

এই ধরণের হোস্টিং তখনই আপনি ব্যবহার করবেন যখন আপনি আপনার সাইটটি বড় কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য তৈরি করবেন। কারণ এই হোস্টিং এর দাম একটু বেশি হলেও সব দিক থেকেই আপনি সিকিউরিটি পাবেন। এর দাম ১৬৯.৯৯ ডলার বা ১৪২৮০ টাকা থেকে আরম্ভ হয়েছে। যার সময়কাল ১ মাস। আপনি সময়কাল বাড়াতে পারবেন। এরও কয়েকটি প্লান আছে। যথা- Economy, Value, Deluxe এবং Ultimate। যাদের প্লান অনুযায়ী ও সময়কাল অনুযায়ী দামের ভিন্নতা রয়েছে।

 

iPage

ipage আরেকটি ফেমাস হোস্টিং প্রোভাইডার। এরাও অনেক ধরনের অফারের সাথে সাথে আপনার সাইটের সর্বোচ্চ সিকিউরিটি দিবে। ipage তাদের হোস্টিং এর দাম শুরু করেছে ১.৯৯ ডলার থেকে। যার মেয়াদ ১ মাস। নিচে ipage এর কয়েকটি হোস্টিং এর ডিটেইলস তুলে ধরা হল।

 

১। Web Hosting

ওয়েব হোস্টিং এর জন্য ipage এর শুধু মাত্র একটি প্লানের ব্যবস্থা রেখেছে। যার মূল্য ১.৯৯ ডলার বা প্রায় ১৬৮ টাকা। আর এটাই ipage এর হোস্টিং গুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন দাম। আপনার মাসে এই টাকাই খরচ হবে। তবে সময়কাল বাড়ালে আপনার হোস্টিং এর দামও তখন বাড়বে।

 

২। VPS Hosting

এই হোস্টিং এর ৩ টা প্লান রয়েছে। এক একটি প্লানের দাম এক এক রকম। আর সময়কালের রয়েছে ভিন্নতা। তবে আপনি যে কোন প্লান এবং চয়েজমত সময়কাল সিলেক্ট করে নিতে পারবেন। Basic, Business এবং Optimum এই ৩টা প্লানের বর্ণনা নিচে তুলে ধরলাম।

 

Basic – এ আছে

1 Core CPU

1 GB of RAM

40 GB disk space

1 TB of bandwidth

1 IP address

Free 1 year domain registration

CentOS 6.4

cPanel

দামঃ ১৯.৯৯ ডলার বা প্রায় ১৬৮০ টাকা। (১ মাস)

তবে সময়কাল বৃদ্ধি করলে দামও বাড়বে।

 

Business এ আছে-

2 Core CPU

4 GB of RAM

90 GB disk space

3 TB of bandwidth

2 IP address

Free 1 year domain registration

CentOS 6.4

cPanel

দামঃ ৪৭.৯৯ ডলার বা প্রায় ৪০৩২ টাকা। (১ মাস)

তবে সময়কাল বৃদ্ধি সাপেক্ষে দাম বাড়বে।

 

Optimum এ আছে-

4 Core CPU

8 GB of RAM

120 GB disk space

4 TB of bandwidth

2 IP address

Free 1 year domain registration

CentOS 6.4

cPanel

দামঃ ৭৯.৯৯ ডলার বা প্রায় ৬৭২০ টাকা। (১ মাস)

তবে সময়কাল বাড়াতে পারবেন।

 

৩। Dedicated Hosting

ডেডিকেটেড হোস্টিং এর মূল্য সব সময়ই বেশি থাকে। সকল প্রোভাইডারই এই হোস্টিং এর দাম বেশি রাখে। তবে দামের সামান্য পার্থক্য হয়ে থাকে প্রোভাইডার ভেদে। ipage এ এই হোস্টিং এর দাম শুরু হয়েছে ১১৯.৯৯ ডলার বা ১০০৮০ টাকা প্রায়। তবে সময়কাল মাত্র ১ মাস। কিন্তু সময়কাল বৃদ্ধি করলে এই দাম আরো বাড়বে।

 

এর ৩ টি প্লান আছে। Startup, Professional এবং Enterprise. এদের দামও ভিন্ন ভিন্ন। আর মেয়াদকালও ভিন্ন ভিন্ন। আপনার সাইটের সুবিধামত আপনি হোস্টিং টার প্লান নির্বাচন করতে পারবেন। আর পরে আপনি চাইলে এক প্লান থেকে অন্য প্লানেও ট্রাসফার হতে পারবেন। Startup প্লানের দাম শুরু হয়েছে ১১৯.৯৯ ডলারে। Professional প্লানের দাম শুরু হয়েছে ১৫১.৯৯ ডলার বা প্রায় ১২৭৬৮ টাকা থেকে এবং Enterprise এর দাম শুরু হয়েছে ১৯১.৯৯ ডলার বা প্রায় ১৬২১২ টাকা থেকে।

 

৪। WordPress Hosting

এই হোস্টিং এর দাম সব প্রোভাইডাররাই একটু কম রাখে। ipage এর বেলায়ও ঠিক তাই। এটা শুরু হয়েছে ৩.৭৫ ডলার থেকে বা ৩১৫ টাকা থেকে। যা ১ মাসের খরচ। WordPress Hosting এর দুইটা প্লান আছে। নিচে তার পূর্ণ বর্ণনা দিলাম।

 

WP Starter এ আছে-

Free 1 year domain registration

Unlimited storage

Unlimited bandwidth

Customized control panel

Pre-installed themes & plug-ins

দামঃ ৩.৭৫ ডলার বা ৩১৫ টাকা। (১ মাস)

মেয়াদ বৃদ্ধি করলে দামও বৃদ্ধি পাবে।

 

WP Essential এ আছে-

Free 1 year domain registration

Unlimited storage

Unlimited bandwidth

Customized control panel

Pre-installed themes & plug-ins

WordPress expert support

Automatic malware removal

SiteLock professional security

দামঃ ৬.৯৫ ডলার বা প্রায় ৫৮৪ টাকা। (১ মাস)

মেয়াদ বাড়ার সাথে সাথে দামও বাড়াতে হবে।

 

তো এই ছিল আজকের পোস্ট। আমি মনে করি যে, এখান থেকে আপনি সেরা হোস্টিং প্রোভাইডারদের পরিপূর্ণ হোস্টিং সম্পর্কে ও তাদের প্লানের দাম এবং ডিটেইলস সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। তাই ধন্যবাদ জানিয়ে আজ এখানেই শেষ করছি। সবাই ভাল থাকবেন।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

Leave a Comment