ফ্রিল্যান্সিং এর কাজসমূহ! দেখুন যে কত ধরনের কাজ করা যায়

আবার হাজির হলাম আপনাদের মাঝে। আমার কাজই তো আপনাদের মাঝে এসে একটু কথা শেয়ার করা। কিভাবে থাকি বলেন আপনাদের ছাড়া। আশা করি সবাই ভাল আছেন। কারণ আপনারা ভাল না থাকলে যে আমিও ভাল থাকতে পারি না।

 

যাই হোক, বাড়তি কথা না বাড়িয়ে চলে আসি আসল কথায়। আমি আগেও অনেক পোস্ট পাবলিশ করেছি ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে। তবে আমাকে অনেকেই ইমেইল করে জানিয়েছেন যে, ফ্রিল্যান্সিং এর কাজসমূহ নিয়ে আলাদা করে একটা পোস্ট করার জন্য। আর তাই আপনাদের জন্যই আজ আমি শুধু মাত্র ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সমূহ নিয়ে কথা বলবো যাতে করে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সম্পর্কে একদম ক্লিয়ার বুঝতে পারেন।

 

কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

 

আমরা সবাই জানি যে, ফ্রিল্যান্সিং মুক্ত পেশার কাজ। এখানে বিপুল পরিমাণে কাজ আছে। নিজের স্বাধীনমত কাজ করতে পারবেন। কাজ না করলে আপনাকে কেউ চাপ প্রয়োগ করতে পারবে না। তবে মেইন কথা হল, এখানে কাজ না করলে আপনি একটি টাকাও ইনকাম করতে পারবেন না। আর যত বেশি কাজ করবেন তত বেশিই আপনার ইনকাম বাড়বে।

 

আপনি প্রথম প্রথম মিনিমাম ২০০ থেকে ৩০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন। তবে আস্তে আস্তে আপনার এই ইনকাম বাড়তেই থাকবে।

 

ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সমূহঃ

নিচে আমি কিছু কাজের উদাহরণ তুলে ধরলাম।

 

ডিজাইনিং

ডিজাইনিং এর অনেক ধরনের কাজ আপনি এখানে পাবেন। আপনাকে এর জন্য ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটরের কাজ জানতে হবে। এছাড়া ডিজাইনিং এর আরো অনেক ধরনের সফটওয়ার আছে যেগুলো সম্পর্কে আপনার পূর্ণ ধারণা থাকতে হবে। তা না হলে ডিজাইনিং এর কাজ আপনি করতে পারবেন না। কারণ ক্লায়েন্টের চাহিদা মাথায় রেখে এক এক সময় এক এক ধরনের ডিজাইন আপনাকে করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের ডিজাইনিং এর কাজ আছে। যেমনঃ

১। প্রেজেন্টেশন
২। ফটোগ্রাফী
৩। অ্যানিমেশন
৪। লোগো ডিজাইন
৫। ইলাস্ট্রেশন
৬। গ্রাফিক্স ডিজাইন ইত্যাদি

 

রাইটিং

এই কাজ করার জন্য আপনাকে সৃজনশীল হতে হবে। কারণ আপনাকে বিভিন্ন ধরনের টপিক্স এর উপর লিখতে হতে পারে। আপনাকে ক্লায়েন্ট যে রাইটিং এর কাজ দিবে আপনাকে প্রথমে সে বিষয়ে রিসার্চ করতে হবে। তারপর পূর্ণ একটা ধারণা লাভ করার পর ঐ বিষয়ে লেখা শুরু করতে হবে। নিচে কিছু রাইটিং এর কাজের উদাহরণ দিলাম।

১। বিজনেস প্লান রাইটিং
২। ক্রিয়েটিভ রাইটিং
৩। একাডেমিক রাইটিং
৪। ওয়েবসাইট কনটেন্ট রাইটিং
৫। টেকনিক্যাল রাইটিং
৬। সি.ভি ও কভার লেটার রাইটিং
৭। গ্রান্ট রাইটিং
৮। কপিরাইটিং
৯। অ্যার্টিকেল ও ব্লগ পোস্ট রাইটিং ইত্যাদি

 

অডিও এবং ভিডিও প্রোডাকশন

আপনি যদি ভাল ভিডিও ধারণ করতে পারেন। তাহলে আপনি এখানে ভিডিও নিয়ে কাজ করতে পারেন। অনেকেই আছে এখানে ভিডিও কেনা বেচা করে থাকে। অনেক ইনকাম আসবে এখান থেকে। অন্যদিকে আপনি যদি ভিডিও এডিট করতে পারেন তাহলেও অনেক জব পাবেন এখান থেকে। তবে ভিডিও বা অডিও এর কাজ করতে হলে আপনাকে অনেক গুলো অডিও এবং ভিডিও এর সফটওয়ারের কাজ জানা লাগবে।

 

সফটওয়ার সম্পর্কে জ্ঞান বা জানা না থাকলে আপনি অডিও বা ভিডিও নিয়ে কাজ করতে পারবেন না।

 

অ্যাডমিন জবস

এই ধরনের কাজ মূলত ডাটা এট্রি, ওয়েব রিসার্চ ইত্যাদি ধরনের হয়ে থাকে। যেমনঃ

১। ডাটা এট্রি
২। ট্রান্সক্রিপশন
৩। ভারচুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্স
৪। প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট
৫। ওয়েব রিসার্চ ইত্যাদি

 

ওয়েব ডিজাইনিং এবং সফটওয়ার ডেভেলপমেন্ট

আপনি যদি কোডিং এ ভাল হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি ওয়েব ডিজাইনিং এবং সফটওয়ার ডেভেলপমেন্টের কাজ করতে পারেন। এই ধরনের কাজের পেমেন্টও বেশি হয়ে থাকে। আপনি যে কোন ধরনের সফটওয়ার তৈরি করতে হতে পারে। তাই ভাল ভাবে এই বিষয়ে জ্ঞান থাকতে হবে। হতে পারে মোবাইল সফটওয়ার বা কম্পিউটারের সফটওয়ার।

 

ট্রান্সলেশন

আপনি যদি বিভিন্ন দেশের ভাষা বুঝে থাকেন। তবে এই কাজ আপনার জন্য উপযোগী। কারণ ট্রান্সলেশনের মত অনেক কাজ আছে এখানে। শুধু মাত্র ক্লায়েন্টদের চাহিদা মোতাবেগ একটা কনটেন্ট কে অন্য ভাষায় রূপান্তরিত করে দিতে হবে।

 

এছাড়া আরো অনেক কাজ আছে। যে গুলো সম্পর্কে আপনার আলাদা আলাদা জ্ঞান থাকার পাশাপাশি কাজ জানা থাকতে হবে।

এই যেমনঃ
কনসালটেশন এবং অ্যাকাউন্টিং
ডাটা সাইন্স ও এনালাইটিক্স
আইটি ও নেটওয়ার্কিং
কাস্টমার সার্ভিস
সেলস এবং মার্কেটিং
ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আর্কিটেকচার ইত্যাদি

 

তবে বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, কনটেন্ট রাইটিং, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এস.ই.ও), ওয়েব ডিজাইন, অনলাইন ডাটা এট্রি ইত্যাদি ধরনের কাজই বেশি করা হয়ে থাকে।

 

আজ এ পর্যন্তই। তবে একটা কথা। আমার সাইটের অন্যান্য পোস্ট দেখতে ভুলবেন না। কারণ আমি আমার সাইটে সকল কনটেন্টই পূর্ণাঙ্গভাবে পোস্ট করি, যাতে করে সে বিষয়ে পরিপূর্ণভাবে জানতে কোন কিছু বাদ না থাকে।

 

ধন্যবাদ

 

আরো কিছু জনপ্রিয় পোস্টসমূহঃ

এফিলিয়েট মারকেটিং কিভাবে শুরু করবেন?

কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবেন তার গাইড

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

Leave a Comment