ওয়েবসাইট তৈরি করতে চাই এখন কি করবো?

ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করতে হবে সেই ট্রিক্স নিয়ে আজ আমি হাজির হলাম। ওয়েবসাইট আপনি নিজেও তৈরি করতে পারেন। আবার অন্য কেউকে দিয়েও এটা পারবেন।

 

তবে নিজে নিজে তৈরি করাই সব থেকে ভাল। কারণ অন্য কেউকে দিয়ে তৈরি করলে আপনার অনেক তথ্য ঐ লোকের কাছে থেকে যায়। যা আপনার সিকিউরিটির জন্য হালকা হয়ে যাবে। অন্যদিকে আপনার অনেক বেশি খরচ হবে যদি আপনি অন্য কেউকে দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করেন। আমি এখানে কিভাবে নিজেই ওয়েবসাইট তৈরি করবেন সেটা দেখাবো।

 

ওয়েবসাইট তৈরি করতে চাই!

তবে কথা না বাড়িয়ে মূল কাজে ফেরা যাক। কিন্তু ওয়েবসাইট খোলার আগে কিছু জিনিস আপনাকে মাথায় রাখতে হবে।

সেগুলো হলঃ

১। কিসের জন্য আপনি ওয়েবসাইটটি বানাবেন?

২। আপনার ওয়েবসাইটটি নিজে যে কারণে বানাবেন।

৩। কেমন খরচ হতে পারে নিজে ওয়েবসাইট বানালে।

 

কিসের জন্য আপনি ওয়েবসাইট বানাবেন?

আপনাকে প্রথমে ঠিক করতে হবে আপনি ঠিক কি কারণে বা কিসের জন্য ওয়েবসাইট বানাতে চান। আপনি যদি এটা ঠিক না করতে পারেন, তাহলে ওয়েবসাইটি থেকে আপনি কোন উপকার পাবেন না। কারণ আপনি ঠিক যে কারণে সাইটটি বানাবেন ঠিক সেই অনুযায়ী সাইটি তৈরি করতে হবে।

 

যেমন আপনি যদি আপনার কোন প্রতিষ্ঠানের পণ্য সেল করার জন্য সাইট বানান এবং পরে সেখানে যদি পণ্যের অ্যাড না দিয়ে অন্য কোন কিছু জুড়ে দেন তাহলে আপনার সাইট কেউ খুজে পাবে না। কারণ প্রতিটা বিষয়ের জন্য আলাদা আলাদা সাইট থাকা খুবই জরুরী।

 

মনে করুন, কেউ একটা মোবাইল ফোন কিনবে। তখন কিন্তু সে গুগলে মোবাইল ফোনের নাম বা ডিলেইটস লিখে সার্চ করবে। এখন আপনার সাইটি যদি মোবাইল ফোন সম্পর্কিত হয়, তাহলে সার্চ রেজাল্টে আপনার সাইটটাও দেখাবে। তাই আপনার ব্যবসা বা উদ্দেশ্য অনুযায়ী আপনার সাইটের নাম রাখতে হবে এবং ঐ ভাবেই আপনার সাইটটা তৈরি করতে হবে। যাতে মানুষ সার্চ করলে আপনার সাইটটি খুঁজে পায়

 

আপনার ওয়েসবসাইটি নিজে যে কারণে বানাবেনঃ

যেহেতু এটা আপনার নিজের ওয়েবসাইট হবে, সেহেতু এটা নিজেই তৈরি করা ভাল। কারণ নিজে তৈরি করা সহজ এবং কোন কোডিং ছাড়াই তৈরি করা যায়। অন্যদের দিয়ে তৈরি করলে আপনার সাইটের নিরাপত্তার পাশাপাশি খরচ অনেক বেশি পড়বে।

 

অন্যদের দিয়ে তৈরি করলে আপনার সাইটের অনেক গোপনীয় বিষয়বস্তুই সেই লোকের কাছে থেকে যায়। ফলে ভবিষ্যৎ এ আপনার সাইট হ্যাক হয়ে যেতে পারে বা অন্য যে কোন ধরনের বড় ক্ষতি হতে পারে।

 

কেমন খরচ হতে পারে নিজে ওয়েবসাইট বানালেঃ

আপনি যদি নিজে তৈরি করেন তাহলে আপনি অনেক অনেক কম খরচেই আপনার সাইটটি বানাতে পারবেন। যেটা আমি আগেও বলেছি। তবে আপনাকে আগে জানতে হবে যে কি কি লাগে সাইটটি বানাতে।

 

প্রথমত আপনার লাগবে একটি ডোমেইন।

 

ডোমেইন কিভাবে কিনতে হয় তার গাইড

 

দ্বিতীয়ত লাগবে হোস্টিং।

 

তৃতীয়ত লাগবে একটি থিম। যা আপনি ফ্রিতেও পেতে পারেন।

 

তবে সাইটের জন্য ডোমেইন ও হোস্টিং ফ্রিতে পাবেন না। এর জন্য আপনাকে সামান্য কিছু অর্থ খরচ করতে হবে। একটা ডোমেইন মিনিমাম প্রায় ১০ থেকে ১২ ডলারের মধ্যে পেয়ে যাবেন। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা। এটা আপনার এক বছরের জন্য খরচ করতে হবে।

 

আর হোস্টিং প্যাকেজের দাম সামান্য বেশি হলেও প্রায় সব সময়ই ডিসকাউন্টে কেনা যায়। ডিসকাউন্ট প্রায় ৫০% পাবেন। মনে করুন একটা হোস্টিং প্যাকেজ ৩০ ডলার দাম। কিন্তু এটা ডিসকাউন্ট মূল্য ১৫ ডলারে কিনতে পারবেন।

 

তাহলে সর্বমোট প্রায় ২২০০ থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যে মানসম্মত একটা ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন আপনি। কিন্তু আপনি যদি অন্য কারোর মাধ্যমে এটা করেন তাহলে আপনার প্রায় ১৫০০০ টাকারও বেশি লাগবে।

 

এখন কিভাবে আপনি ওয়েবসাইট তৈরি করবেন এবং কিভাবে ডোমেইন, হোস্টিং কিনবেন সেটা আমি নিচে ধাপে ধাপে দেখালাম।

 

সবশেষে এইটুকু বলি যে, আপনি নিজে কোন ব্যবসা করতে গেলে আপনার নিজের একটা ওয়েবসাইট থাকা খুবই জরুরী। আর নিজেরই ওয়েবসাইট যেহেতু, সেহেতু সাইট বানাতে অন্যকে অনেক টাকা না দিয়ে নিজেই কম খরচে মানসম্মত সাইট খুলুন।

 

তাহলে এই গাইড থেকে এখন জেনে নিন যে কিভাবে আপনি নিজেই আপনার ওয়েবসাইটটি বানাবেন

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

Leave a Comment